বাংলাদেশী প্লেয়ারদের জন্য ব্যাংকিং অপশন! বেটভিসা বাংলাদেশ

বাংলাদেশী প্লেয়ারদের জন্য বাংলাদেশী মোবাইল ব্যাংকিং অপশনসহ বেটভিসা বাংলাদেশ একটি সেরা অপশন। বাংলাদেশ থেকে আপনারা যারা প্রফেশনাল বেটিং করে থাকেন বা নতুন বেটিং করবেন বলে ভাবছেন তাদের জন্য বেটভিসা একটি উপযুক্ত প্ল্যাটফর্ম।

বাংলাদেশে বেটিং করার ক্ষেত্রে সাইটের বিশ্বস্ততা এবং নিরাপত্তা নিয়ে অনেকটা ভাবতে হয়। কেননা অনলাইনে অসংখ্য বেটিং সাইট রয়েছে যেগুলো কখনো তাদের গ্রাহকদের পেমেন্ট করেনা। বরং গ্রাহক এসকল সাইটে বেটিং করে অনেকেই তাদের টাকা হারিয়েছেন। আর তাই আপনাদের জন্য বেটভিসা সাইটটি শতভাগ নিরাপদ এবং ১০০% এখানে আপনি পেমেন্ট নিতে পারবেন।

যারা বেটভিসা সাইটে কিভাবে বেটিং করবেন, কিভাবে ডিপোজিট করবেন আর কিভাবে জিতে নেওয়া অর্থ নিজের হাতে নিয়ে আসবেন সে ব্যাপারে জানেন না, আজকের আর্টিকেলটা তাদের জন্য। বিস্তারিত থাকছে নিচে।

বেটভিসা বাংলাদেশ সম্পর্কে

বেটভিসা হচ্ছে একটি বাংলাদেশি প্ল্যাটফর্ম, যাদের প্ল্যাটফর্ম দ্বারা আপনি বেটিং করার সুযোগ পাবেন। এখানে আপনারা ক্যাসিনো খেলার পাশাপাশি আরও অসংখ্য খেলা পাবেন যেখানে আপনি বেট প্লেস করার সুযোগ পাবেন। বাংলাদেশে অসংখ্য বেটিং সাইটের মধ্যেও বেটভিসা অত্যন্ত জনপ্রিয় এবং ইউজার ফ্রেন্ডলি একটি সাইট। বেটিং সম্পর্কে যদি আপনি আগে থেকেই জেনে থাকেন তাহলে এখানে আপনি যেকোনো খেলায় বেট জেতার মত সুযোগ পাচ্ছেন। এক্ষেত্রে আপনাকে প্রথমত ডিপোজিট করতে হবে।

আপনারা যারা ইতিপূর্বে বেটিং করেছেন তারা নিশ্চই জানেন যে, বেটিং করার ক্ষেত্রে অবশ্যই কিছু নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা আপনাকে ডিপোজিট করতে হয়। ডিপোজিট করা টাকা আপনি আপনার ইচ্ছেমত বেটিং করার ক্ষেত্রে ব্যয় করতে পারবেন। এক্ষেত্রে ৫০০ ডিপোজিট করে একটি খেলায় বেটিং করে জিততে পারলে পেয়ে যাচ্ছেন এর ডবল পরিমাণ টাকা অর্থাৎ ১০০০ টাকা। এভাবেই মূলত বেটিং বিষয়টি কাজ করে থাকে। তবে শেয়ার মার্কেট সম্পর্কে না জেনে যেমন ইনভেস্ট করতে নেই, তেমনি বেটিং সম্পর্কে নতুন হয়ে থাকলে বেটিং করাটা ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে।

তাহলে উপায় কি? উপায় হচ্ছে অনলাইনে অসংখ্য ফ্রী বেটিং সাইট বা মোবাইল অ্যাপ আছে। এই সাইটগুলোর একটি বিশেষত্ব এখানে টাকা ছাড়াই ফ্রী বেটিং করা যায়।

অর্থাৎ অনেকটা বেটিং এর মতই। এটি আপনাকে বেটিং এর ব্যাপারে অভিজ্ঞ করে তুলতে সক্ষম।

সুতরাং, নতুনদের জন্য এটি একটি উপায় যার মাধ্যমে তারা বেটিং শিখে নিতে পারে।

এবার বেটিং সম্পর্কে জানার পর আপনার ডিপোজিট করতে হবে।

তাহলে চলুন, কিভাবে বেটভিসা সাইটে ডিপোজিট করবেন সেটি সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

বেটভিসা বাংলাদেশ ডিপোজিট পদ্ধতি এবং কিভাবে ডিপোজিট করবেন?

আপনি যদি বেটভিসা বাংলাদেশ সাইটে বিকাশ, রকেট বা নগদের মাধ্যমে টাকা ডিপোজিট করতে চান তবে সর্বনিম্ন এখানে আপনি ২০০ টাকা পর্যন্ত ডিপোজিট করতে পারবেন।

সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত এখানে ডিপোজিট করতে পারবেন।

PayTM এর ক্ষেত্রে মিনিমাম ডিপোজিট ২ হাজার এবং ম্যাক্সিমাম ডিপোজিট করতে পারবেন ৯৯ হাজার টাকা পর্যন্ত।

অন্যান্য মাধ্যমেও ডিপোজিট করতে পারবেন।

তবে একজন ১৮ বছর বয়সী বা তার উর্ধ্বে ব্যক্তিই কেবল এখানে ডিপোজিট করতে পারবেন।

কিভাবে একটি ডিপোজিট সম্পন্ন করবেন স্টেপ বাই স্টেপ গাইড নিচে দেওয়া হলো। নিচের দেওয়া স্টেপগুলো অনুসরণ করুন।

১. প্রথমে Betvisa সাইটে একটি একাউন্ট তৈরি করুন বা পূর্বে একাউন্ট থাকলে তাতে সাইন ইন করুন।

২. সাইটের উপরেই Make a Deposit নামে একটি অপশন রয়েছে, এতে ক্লিক করুন ডিপোজিট করার জন্য।

৩. এই পর্যায়ে আপনাকে একটি ব্যাংকিং সিস্টেম সিলেক্ট করে দিতে হবে। অর্থাৎ আপনি বিকাশ, নগদ বা রকেট যেকোনো ব্যাংকিং সিস্টেমের মাধ্যমেই টাকা পাঠাতে পারবেন। যেকোনোটি সিলেক্ট করে দিন।

৪. এবার আপনি কত টাকা ডিপোজিট করতে চাচ্ছেন সেটা সিলেক্ট করুন।

এখানে বিকাশ/নগদ বা রকেটের ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন ২০০ টাকা পর্যন্ত ডিপোজিট করতে পারবেন। অতঃপর সবুজ ডিপোজিট বাটনে ক্লিক করুন।

আপনি চাইলে বিকাশ পেমেন্ট অ্যাপ, নগদ পেমেন্ট অ্যাপ, রকেট পেমেন্ট অ্যাপ ব্যবহার করে পেমেন্ট সম্পন্ন করতে পারেন।

৫. এবারে আপনাকে একটি নতুন পপ আপ উইন্ডো তে নিয়ে যাওয়া হবে।

এখানে আপনি আপনার ট্রানজেকশন এর ডিটেইলস টা কপি করে সাবমিট করুন। Submit লেখা অপশনে ক্লিক করুন।

আপনার ডিপোজিট করা কমপ্লিট। সাথে সাথেই কিংবা ৫ মিনিটের মধ্যেই আপনার টাকা একাউন্টে এড হয়ে যাবে।

কেন বেটভিসা সাইটের ভেরিফিকেশন

Betvisa সাইটে বেটিং করতে হলে অবশ্যই একজন বাংলাদেশীকে ভেরিফিকেশন করতে হবে। কেন বাংলাদেশি প্লেয়ারদের ভেরিফিকেশন করতে হবে এই প্রশ্নটা অনেকে করেন।

দেখুন বাংলাদেশে এখনও পর্যন্ত সকল বয়সের প্লেয়ারদের জন্য জুয়া খেলা উন্মুক্ত নয়।

যেকেউ চাইলেই বেটিং করতে পারবেন না। কিন্তু অনেকেই অবৈধ ভাবে ১৮ বছরের কম বয়সী হওয়ার সত্বেও বেটিং করতে চান।

এক্ষেত্রে কেউ অবৈধ উপায়ে বেটিং করতে না পারার জন্যে বেটভিসা সাইটের এই ভেরিফিকেশন প্রক্রিয়া।

এই প্রক্রিয়ায় আপনাকে সরকারি ডকুমেন্ট দিয়ে ভেরিফিকেশন করতে হবে। তবে এটি সম্পূর্ণ নিরাপদ।

কিভাবে ভেরিফিকেশন করবেন?

ভেরিফিকেশন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা ছাড়া আপনি বেটভসা সাইটে বেটিং করতে পারবেন না।

তাই নিচের স্টেপ গুলো অনুসরণ করে ভেরিফিকেশন কমপ্লিট করে নিন।

১। জাতীয় পরিচয় পত্র/ড্রাইভিং লাইসেন্স/পাসপোর্ট যেকোনো একটি ডকুমেন্ট আপনার প্রয়োজন হবে।

২। ভেরিফিকেশন অপশনে ক্লিক করুন, এখানে আপনার যেকোনো একটি ডকুমেন্ট সাবমিট করুন।

৩। ডকুমেন্ট সাবমিট করা শেষে এবার আপনার মোবাইল নাম্বারটি দিন।

নাম্বারে একটি কোড পাঠানো হবে সেটি উপযুক্ত স্থানে বসিয়ে ভেরিফিকেশন অপশনে ক্লিক করলেই আপনার কাজ শেষ।

এভাবে খুব সহজেই আপনি ভেরিফিকেশন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে পারবেন।

যেকোনো সমস্যায় সরাসরি তাদের সাথে চ্যাট করে সমাধান পাবেন।

বেটভিসা পেমেন্ট অপশন

আমরা কাজ করার আগে পেমেন্ট নিয়ে অনেক চিন্তা করি। অনলাইনে নগদ পেমেন্ট অ্যাপ, বিকাশ পেমেন্ট অ্যাপ বা রকেট পেমেন্ট অ্যাপ ইত্যাদি কীওয়ার্ড লিখে প্রচুর পরিমাণে সার্চ হয়।

কারণ একটাই! কাজ করে পেমেন্ট নেওয়ার ভালো অপশন না থাকা।

কিন্তু বেটভিসা বাংলাদেশ সাইটে এই দুশ্চিন্তা আপনার করতে হবেনা।

এখানে আপনি নগদ, বিকাশ বা রকেট যেকোনো মাধ্যমে টাকা উইথড্র করতে পারবেন।

কেবল Withdraw অপশনে ক্লিক করে, Add Wallet থেকে বিকাশ/নগদ/রকেট যেকোনোটি সিলেক্ট করে টাকার পরিমাণ বিষয়ে Withdraw ক্লিক করলেই কাজ শেষ। সর্বনিম্ন ১০০০ টাকা হলেই আপনি উইথড্র দিতে পারবেন। সর্বোচ্চ ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই আপনি পেমেন্ট পেয়ে যাবেন। সুতরাং, আর নয় পেমেন্ট নিয়ে চিন্তা। হ্যাপি বেটিং!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Bangladeshi Casino Sites
Daily 10% Deposit Bonus
VIP Point Exchange
Sign up and get ৳500 free Credit
No Deposit Bonus upto ৳ 20,000
Cashback Bonus Upto ৳500,000